শাহারিয়া শাহাদাৎ, রিপোর্টার
চাঁপাইনবাবগঞ্জ:-চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুর উপজেলার হোগলা প্রতিবন্ধী স্কুলের নির্মাণ কাজ অর্থের অভাবে বন্ধ রয়েছে। বর্তমানে স্কুলের অফিসঘর ও দু’টি শ্রেণীকক্ষের ভবন অসমাপ্ত অবস্থায় রয়েছে। স্কুলের সভাপতি ও গোমস্তাপুর ইউপি চেয়ারম্যান জামালউদ্দিন মন্ডল জানান, উপজেলা পরিষদের সহায়তায় ও ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোগে এ পর্যন্ত আসা সম্ভব হয়েছে। স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীরা শ্রেণীকক্ষের অভাবে খোলা আকাশের নীচে পড়াশুনা চালিয়ে যাচ্ছে। প্রতিবন্ধীদের কল্যাণে ২০১২ সালে হোগলা প্রতিবন্ধী সংস্থা প্রতিষ্ঠা লাভ করে। উক্ত সালেই হোগলা প্রতিবন্ধী সংস্থা কর্তৃক স্কুলের জন্ম হয়। ২০১৫ সালে হোগলা প্রতিবন্ধী সংস্থা সমাজ সেবা অধিদপ্তরের রেজিষ্ট্রেশন প্রাপ্ত হয়। সেই থেকে মাঝে মাঝে প্রাপ্ত কিছু অনুদান, শুভানুধ্যায়ীদের চাঁদা ইত্যাদির উপর নির্ভর করে প্রতিষ্ঠানটি খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে চলছে। বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটিতে ৬২ জন বিভিন্ন পর্যায়ের প্রতিবন্ধী ছাত্র-ছাত্রী পড়াশুনা করছে। স্কুলের ৫ জন শিক্ষক-শিক্ষিকা ২০১২ সাল থেকে অদ্যবধি কোন বেতন-ভাতা ছাড়াই নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। প্রধান শিক্ষক জাহানারা খাতুন জানান, শুধু মাত্র প্রতিবন্ধী ছাত্র-ছাত্রীদের লেখাপড়ার স্বার্থেই আমরা এ স্বেচ্ছাশ্রম চালিয়ে যাচ্ছি। ছাত্র-ছাত্রীদের বই-খাতা, চক-ডাস্টার ব্লাকবোর্ডের জন্য আমাদের অনেকের দরজায় যেতে হয়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী প্রতিবন্ধীদের কল্যাণে অনেক কিছু করছেন। সরকার দেশের প্রতিটি উপজেলায় ১টি করে প্রতিবন্ধী স্কুল অনুমোদন দিবে বলে আমরা শুনেছি। তাই অনেক আগে প্রতিষ্ঠিত এবং অনেক কষ্ট করে এগিয়ে যাওয়া এ প্রতিষ্ঠানটিকে সরকার অনুমোদন দিবেন বলে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে এটাই আমাদের প্রত্যাশা। তাছাড়া স্কুল ভবনের অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করতে সমাজের বিত্তবানেরা এগিয়ে আসবেন বলে আমরা আশা করি। আমাদের ব্যাংক একাউন্ট নং-হোগলা প্রতিবন্ধী সংস্থা সঞ্চয়ী হিসাব-১২৪৩৫, ইসলামী ব্যাংক, রহনপুর শাখা।