প্রতিহিংসার রাজনীতি করব না, এ কথা খালেদা জিয়ার মুখে একেবারেই হাস্যকর, ভূতের মুখে রামনাম : কুষ্টিয়ায় মাহবুব-উল-আলম হানিফ
কুষ্টিয়া, ১৩ নভেম্বর’ ২০১৭ :
বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ এমপি বলেছেন, গতকাল বিএনপির সমাবেশে বেগম খালেদা জিয়া যেসব বক্তব্য রেখেছেন সেগুলোর বেশিরভাগই অসত্য। অসত্য তথ্য দিয়ে জাতিকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করা হয়েছে। সবচেয়ে আপত্তিকর ছিল যে, বেগম জিয়া নির্লজ্জ মিথ্যাচার করে বলেছেন প্রতিহিংসার রাজনীতি করব না। কিন্তু বিগত দিনে তিনিই প্রতিহিংসার রাজনীতির চুড়ান্ত বহিপ্রকাশ ঘটিয়েছিলেন। প্রতিহিংসা নয়, এ কথা খালেদা জিয়ার মুখে একেবারেই হাস্যকর, ভূতের মুখে রামনাম। সোমবার বেলা ১২টায় কুষ্টিয়া সরকারী কলেজে নবনির্মিত শেখ হাসিনা ছাত্রীনিবাস’র উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।
হানিফ বলেন, ভোট প্রদানে সহজীকরন করতে আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে ভোটে ইভিএম ব্যবহারের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। সিন্ধান্ত নির্বাচন কমিশন নেবেন। কারচুপি করে ক্ষমতায় যেতে বেগম খালেদা জিয়া এক কোটি ত্রিশ লক্ষ ভূয়া ভোটার বানিয়েছিল। ইভিএম হলে তো ওই ভোট কাজে আসবে না, তাই তিনি এর বিরোধিতা করছেন। উনি জ্বালিয়াতির পথ চান।
নির্বাচনের ব্যাপারে হানিফ বলেন, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন সংবিধানের আলোকেই হবে। নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েন থাকবে কিনা সে বিষয়ে সিন্ধান্ত নেবে নির্বাচন কমিশন। তবে সেনাবাহিনীকে ম্যাজিষ্ট্রেসি পাওয়ার দেওয়ার বিধান ইতিপূর্বেও কখনও ছিল না। এটা যোক্তিক বলে মনে করছি না। এই সরকারের অধীনে যেসব নির্বাচন হয়েছে সবগুলোই অবাধ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হয়েছে।
পরে ২০১৭-১৮ সালের নবীন শিক্ষার্থীদের বরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন হানিফ এমপি। কলেজের অধ্যক্ষ মনজুর কাদির’র সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আওয়ামীলীগ নেতা হাজী রবিউল ইসলাম, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সদর উদ্দিন খান, সাধারন সম্পাদক আজগর আলী প্রমুখ। অনুষ্ঠানে কলেজের শিক্ষার্থী-শিক্ষক ও কর্মকর্তা কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

 

হাসিবুর রহমান রুবেল
কুষ্টিয়া।