বেলজিয়ামে পালিয়ে যাওয়া কাতালোনিয়ার স্বাধীনতাকামী নেতা বরখাস্তকৃত প্রেসিডেন্ট কার্লেস পুজেমন এবং তার ৪ মন্ত্রীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছে স্পেন। এরপর বেলজিয়ামের অফিস জানিয়েছে, তারা এখন এই পরোয়ানার বিষয়টি পর্যালোচনা করছে।
খবর বিবিসির।

কাতালোনিয়ায় কেন্দ্রীয় শাসন জারি করার পর পুজেমনসহ বাকি চার নেতার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ ও উস্কানি দেওয়ার অভিযোগ আনে স্পেন সরকার। এরপর গ্রেফতারি এড়াতে তারা বেলজিয়ামে পালিয়ে যান।

তবে পুজেমন জানিয়েছেন, ন্যায় বিচার করা হবে এমন নিশ্চয়তা না পেলে তিনি স্পেনে ফিরবেন না।

এদিকে, রাষ্ট্রদ্রোহ ও জনগণকে বিক্ষোভে অংশ নিতে উস্কানি দেওয়া এবং সরকারি তহবিল অপব্যবহারের অভিযোগ গতকাল কাতালোনিয়ার আঞ্চলিক সরকারের ক্ষমতাচ্যুত ৮ মন্ত্রীকে আটক করে। এই ঘটনার প্রতিবাদে বার্সেলোনাসহ কাতালোনিয়ার অনেকগুলো বড় শহরে বিক্ষোভে নামে সাধারণ মানুষজন। যদিও পরে ৫০ হাজার ইউরোর মিনিময়ে তাদের একজনকে জামিন দেওয়া হয়।

এর আগে, গত ১ অক্টোবর গণভোটে স্বাধীনতার পক্ষের রায় দেয় কাতালোনিয়ারা। এর কিছুদিন পরই স্বাধীনতার ঘোষণা করে কাতালোনিয়ার আঞ্চলিক পার্লামেন্ট, কিন্তু কেন্দ্রীয় সরকার সেই ঘোষণাকে অসাংবিধানিক ঘোষণা দিয়ে কেন্দ্রের শাসন জারি করে।

কাতালোনিয়ার জনসংখ্যা ৭৫ লাখ। যা স্পেনের মোট জনসংখ্যার ১৬ শতাংশ। স্পেনের উত্তর-পূর্বের এই প্রদেশটির রাজধানী বার্সেলোনা। ফুটবল এবং পর্যটনের কারণে বিশ্বের অত্যন্ত জনপ্রিয় শহরগুলোর একটি এটি। এছাড়া কাতালোনিয়ানদের আছে নিজস্ব ভাষাও।