লন্ডনে শুরু হয়েছে ২৫তম কমনওয়েলথ শীর্ষ সম্মেলন (সিএইচওজিএম)। আজ স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় বাকিংহ্যাম প্যালেসে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন ব্রিটেনের রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথ। ৫৩টি দেশের সরকার ও রাষ্ট্র প্রধানের সঙ্গে সম্মেলনে যোগ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সম্মেলনের পর কমনওয়েলথ নেতৃবৃন্দ ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে ও কমনওয়েলথ মহাসচিব প্যাট্রিসিয়া স্কটল্যান্ড কিউসির ল্যাংকেস্টার হাউসে দেয়া আনুষ্ঠানিক সংবর্ধনায় যোগ দেবেন। পরে বিকালে সেন্ট জেমস প্রাসাদে কমনওয়েলথ মহাসচিব আয়োজিত অপর এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানেও তাদের অংশগ্রহণের কথা রয়েছে। সম্মেলনের উদ্বোধনী দিনে ল্যাংকেস্টার হাউসে তিনটি কার্যনির্বাহী সেশনে অংশ নেবেন কমনওয়েলথ নেতৃবৃন্দ।

এবার সম্মেলনের প্রতিপাদ্য হচ্ছে- সাধারণ ভবিষ্যতের দিকে (টুয়ার্ডস কমন ফিউটার)। এতে বিশেষ মনোযোগ থাকবে কমনওয়েলথভুক্ত দেশগুলোর জন্য উন্নতি, নিরাপত্তা, ন্যায্যতা ও স্থায়ীত্ব অর্জনের বিষয়ে। নিয়মানুসারে সিএইচওজিএম বৈঠকের আয়োজক দেশই এর সভাপতিত্ব করে। সিএইচওজিএম বৈঠকে আয়োজক দেশের কাছে কমনওয়েলথের সভাপতিত্ব স্থানান্তর করা হবে। মাল্টার প্রধানমন্ত্রী ড. জোসেপ মাসকাটের কাছ থেকে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মের কাছে এ সভাপতিত্ব স্থানান্তর হবে এবং ২০২০ সালে ২৬তম সিএইচওজিএম বৈঠক পর্যন্ত তিনি এ পদে থাকবেন। ২৫তম সিএইচওজিএম বৈঠকটি প্রশান্ত মহাসাগরীয় দ্বীপরাষ্ট্র ভানুয়াটুতে ২০১৭ সালে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও দ্বীপরাষ্ট্রটি ঘূর্ণিঝড় পাম আক্রান্ত হওয়ায় এটি পরে ব্রিটেনে স্থানান্তরের সিদ্ধান্ত হয়।