ভারত ৫-১ জাপান
সুনীল কিতাজাতু কেনজি
ললিত
রামানদীপ
হারমানপ্রীত (২)
ভারত
প্রথম কোয়ার্টার
০২ মিনিটে পাল্টা আক্রমনে সর্দার সিংয়ের পাস থেকে সুনিল সোমারপেত গোল করেন ১-০
০৭ মিনিটে পিসি পেলে সেটি ভিডিও রেফারেলের মাধ্যমে বাদ হয়
১০ মিনিটে আকাশদীপের হিট রুখে দেন জাপানের কীপার ইউসিকাওয়া তাকাসি
১১ মিনিটে আকাশদীপের রিভার্সহিট একটুর জন্য বাইরে
দ্বিতীয় কোয়ার্টার
০৫ মিনিটে পিসি। উথাপ্পা- সুমিত-হারমানপ্রীত মিস
০৬ মিনিটে ললিতের হিটে জাপানের কীপার পরাভুত ২-১
তৃতীয় কোয়ার্টার
০২ মিনিটে রামানদীপ সিং কোনাকুনি রিভার্স হিটে গোল। নেটের ফাঁক
দিয়ে গোল হয়েছে ভেবে জাপানের রেফারেল। ভারতের পক্ষে রায় ৩-১
০৫ মিনিটে পিসি। সুনীল- মনপ্রীত-হারমানপ্রীতের গোল ৪-১
চতুর্থ কোয়ার্টার
০২ মিনিটে পিসি। সর্দার সিং-মনপ্রীত-হারমানপ্রীত গোল ৫-১

জাপান
প্রথম কোয়ার্টার
০৩ মিনিটে তানাকা কেন্তার বাড়ানো বলে কানেক্ট করে সমতায় আনেন
কিতাজাতো কেনজি ১-১
০৯ মিনিটে বিপদ সীমানায় অধিনায়ক মানাবু রিভার্স হিট নিতে ব্যার্থ
দ্বিতীয় কোয়ার্টার
১৩ মিনিটে ওয়াতানাবি কোতার দর্শনীয় কোনাকুনি হিট একটুর জন্য বাইরে
তৃতীয় কোয়ার্টার
১০ মিনিটে পাল্টা আক্রমন। হিট নিতে ব্যার্থ তানাকা কাইতু
চতুর্থ কোয়ার্টার
১৩ মিনিটে পিসি। মিস করেন তানাকা কেন্টা
১৪ মিনিটে পিসি। মিস করেন ইয়ামাদা শুটা

 

উদ্বোধন করেন গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পরিকল্পনা মন্ত্রী জনাব আহম মোস্তাফা কামাল। আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের সভাপতি ও বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার মার্শাল জনাব আবু এসরার, যুব ও ক্রীড়া উপমন্ত্রী জনাব আরিফ খান জয়, এশিয়া হকি
ফেডারেশনের (এএইচএফ) সিইও এবং আইওসির সদস্য জনাব তৈয়ব ইকরাম, টুর্নামেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান জনাব শফিউল্লাহ আল মুনির।

জাপান কোচ: আমাদের শুরুটা ভালোই ছিল। প্রথম কোয়ার্টারে ১-১ ছিল। খেলা যত গড়িয়েছে ভারতের নিয়ন্ত্রণ তত বেড়েছে ম্যাচে। ২-১,৩-১ হওয়ার পরেও আমরা ম্যাচে ফেরার চেষ্টা করেছি। তৃতীয় কোয়ার্টার থেকে ব্যবধান বেড়ে যওয়ায় ম্যাচে ফেরা হয়নি। ভারত কাউন্টার অ্যাটাকে খুবই ভালো।
ভারত খুবই পেশাদার দল ও শারীরিকভাবে খুবই ফিট। এদিক থেকৈ তারা টুর্নামেন্টের অন্য দলগুলোর চেয়ে অনেক এগিয়ে। আমরা খুবই স্বল্প প্রস্তুতি নিয়ে টুর্নামেন্টে খেলতে এসেছি। আমাদের দলে অনেকে আছে ছাত্র, পেশাজাবী। সামনের ম্যাচগুলোতে আমরা আরো ভালো খেলতে চাই।
স্বাগতিক বাংলাদেশ নিয়ে এখনো ভাবছি না। পরের ম্যাচ পাকিস্তানের সাথে পাকিস্তানই এখন আমাদের ভাবনা।

ভারতের কোচ: ভারতের কোচ হিসেবে আমার প্রথম ম্যাচ থাকলেও দলের জয়ের দিকেই ছিল মনোযোগ। টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচ জিততে পেরে আমি সন্তুষ্ট। জাপান বাংলাদেশের সাথে প্রস্তুতি ম্যাচ হেরেছিল। আমরা প্রস্তুতি ম্যাচের ফলাফল গুরুত্ব দিয়ে দেখিনি। নিজেদের স্বাভাবিক খেলাটাই খেলার চেষ্টা করেছি। তৃতীয় কোয়ার্টারে ৪-১ হয়ে যাওয়ার পর ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ আমাদের চলে আসে। টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচ। তাই প্রথম কোয়ার্টারে খেলোয়াড়রা একটু উদ্বিগ্ন ছিল। সময়ের সাথে সাথে খেলোয়াড়রা নিজেদের মানিয়ে নেয়।
পেনাল্টি কর্নারগুলো আমরা সদ্ব্যবহার করতে পেরেছি। পেনাল্টি কর্নারের আমাদের কম্বিনেশন যথেষ্ট ভালো হয়েছে। গোল ও জয় আতœবিশ্বাস বাড়ায়। এই ধারাবাহিকতা আগামী ম্যাচেও থাকবে । আজকে রেজাল্ট হয়েছে বাংলাদেশের বিপক্ষেও এমন ফলাফল হবে আশা করি।