সাংগঠনিক দুর্বলতা ও প্রস্তুতির ঘাটতি ভুলে সবাইকে এক হয়ে দশম এশিয়া কাপে দেশের সম্মানের জন্য, বাংলাদেশের লাল-সবুজ পতাকার জন্য লড়াই করার আহবান জানিয়েছেন সাবেক খেলোয়াড়রা। বর্তমান দলের খেলোয়াড়দের হাতে অটোগ্রাফ দেয়া হকি স্টিক তুলে দেন ৮৫’র এশিয়া কাপের দলের সদস্যরা। বর্তমান দলও সেই প্রেরণা থেকে নিজেদের সর্বোচ্চ চেষ্টা করার অঙ্গীকার করেছে।

শনিবার বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন (বিওএ) অডিটোরিয়ামে, বাংলাদেশ স্পোর্টস প্রেস অ্যাসোসিয়েশন (বিএসপিএ)-এর আয়োজনে হকি স্টারস: ১৯৮৫ ও ২০১৭ শীর্ষক অনুষ্ঠানে ১৯৮৫’র এশিয়া কাপের দলকে সম্মাননা জানানো হয়। একই অনুষ্ঠানে তাদের হাত ধরে শুভকামনা জানানো হয় এবারের এশিয়া কাপে অংশগ্রহনকারী দলটিকে।

৮৫’র এশিয়া কাপ দলের অধিনায়ক শাহাবুদ্দিন চাকলাদার, ওসমান গনি, আলমগীর চুন্নু, কামরুল ইসলাম কিসমত, খাজা ড্যানিয়েল, জামিল পারভেজ লুলু, আব্দুল্লাহ পিরু উপস্থিত ছিলেন। দলের বাকি সদস্যদের অনেকে বিদেশে আছেন, অনেকে মারা গেছেন বা অসুস্থ। ঐ টুর্নামেন্টের সহকারী টেকনিক্যাল ডিরেক্টর শামসুল বারী, আম্পায়ার সেকান্দার হায়াত চৌধুরীকেও সম্মাননা জানানো হয়।

ছিলেন হকি ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সাদেক, সহসভাপতি খাজা রহমতউল্লাহ, সাবেক খেলোয়াড় প্রতাপ শঙ্কর হাজরা, এহতেশাম সুলতান, সাজেদ আদেল, তারিকুজ্জামান নান্নু। বাংলাদেশ স্পোর্টস প্রেস অ্যাসোসিয়েশনের (বিএসপিএ) সভাপতি মোস্তফা মামুন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। বর্তমান দলের পক্ষে অধিনায়ক রাসেল মাহমুদ জিমি ও কোচ মাহবুব হারুন দেশবাসীর প্রত্যাশা মাথায় নিয়ে ভাল খেলার প্রতিশ্রুতি দেন।