আজ ০১ জানুয়ারী ২০১৮ সোমবার বছরের প্রথম দিনে সকাল ১০টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সকল স্বীকৃতিপ্রাপ্ত নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির দাবিতে ‘আমরণ অনশন’ কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করছেন সংগঠনের অন্তর্ভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীবৃন্দ। ইতোপূর্বে সংগঠনের পক্ষ থেকে ২৬ ডিসেম্বর থেকে ৩০ ডিসেম্বর ২০১৭ পর্যন্ত পাঁচ দিন জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে খোলা আকাশের নিচে দিবারাত্রি অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছেন শিক্ষক-কর্মচারীবৃন্দ।

এখন পর্যন্ত সরকারের পক্ষ থেকে এমপিওভুক্তির কোন ঘোষণা আসে নাই বরং ৩০ ডিসেম্বর ২০১৭ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী অর্থপ্রাপ্তি সাপেক্ষে এমপিওভুক্তি করবেন বলে যে পুনরুক্তি করেন তা সংগঠনের পক্ষ থেকে প্রত্যাখান করা হয়। ইতোপূর্বে সংগঠনের পক্ষ থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট আমাদের দাবি সংবলিত একটি আবেদনপত্র জমা দেয়া হয়। নেতৃবৃন্দ এমপিওভুক্তির দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত কর্মসূচি অব্যাহত রাখার প্রত্যয় ব্যক্ত করে বলেন, অনশন চলাকালে মৃত্যুর খবর শোনার আগেই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা সকল স্বীকৃতিপ্রাপ্ত শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির ঘোষণা দেবেন।

শিক্ষক নেতৃবৃন্দ বলেন, গত ৩০ ডিসেম্বর ২০১৭ জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষায় ভালো ফলাফলের কৃতিত্বের দাবিদার হলেও আমরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে উপস্থিত থেকে শিক্ষার্থীদের সাথে সেই ফলাফলের আনন্দের অংশীদার হতে পারিনি। তাছাড়াও ১লা জানুয়ারী বই উৎসবেও অংশগ্রহণ করতে পারিনি।

আমরণ অনশনের ২য় দিনে অংশগ্রহণকারী শিক্ষক-কর্মচারীবৃন্দ শারীরিক ও মানসিক ভাবে দুর্বল হয়ে পড়েছেন। আজকে ১৬ জন শিক্ষক-কর্মচারী অসুস্থ্য হয়ে বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা গ্রহণ করেন। এর মধ্যে কুড়িগ্রাম চিলখালা মডেল কলেজের মোঃ ফরহাদ, বরিশালের আল-ইখন দাখিল মাদ্রাসার মোঃ বজলুর রহমান, কুষ্টিয়া খোকসা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের আব্দুর রাজ্জাক, বরিশালের আল ইখওয়াসা দাখিল মাদ্রাসার ফজলুর রহমানের অবস্থা গুরুতর।

আমরণ অনশন কর্মসূচিতে সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন, ডক্টরস ফর হেলথ এন্ড এনভায়রনমেন্ট এর সভাপতি অধ্যাপক ডাঃ এম.এ সাঈদ (বারডেম), গণতান্ত্রিক বামমোর্চার সমন্বয়ক সাইফুল হক, সিপিবি’র কেন্দ্রীয় নেতা রুহিন হোসেন প্রিন্স, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি, জাতীয় মুক্তি কাউন্সিলের সাধারণ সম্পাদক ফয়জুল হাকিম, বাসদের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য বজলুর রশিদ ফিরোজ ও খালেকুজ্জামান লিপন, ন্যাপের সম্পাদক পার্থ সারথী চক্রবর্তী, সিপিবির প্রেসিডিয়াম সদস্য ক্বাফি রতন ও জলি তালুকদার, ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা আকবর খান প্রমুখ।

আগামী দিনের কর্মসূচী ঃ “দাবী আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমরণ অনশন চলবেই।”