মোঃ ইউনুস আলী, লালমনিরহাট প্রতিনিধি:

লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলায় শিশু শিক্ষার্থীর উপবৃত্তির টাকা কেটে নেয়ায় সফিকুল ইসলাম(২৭) নামের  সিওরক্যাশের এক এ্যাজেন্টকে ৭ দিনের কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত। গতকাল সোমবার এই কারাদণ্ড দেওয়া হয়। আজ মঙ্গলবার আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

জানা গেছে, স্বচ্ছতা আনায়নের জন্য প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের উপবৃত্তির টাকা ছাত্র-ছাত্রীদের মোবাইল এ্যাকাউন্টে দেওয়া হচ্ছে রুপালি ব্যাংকের মাধ্যমে। রুপালি ব্যাংক থেকে নির্দিষ্ট সংখ্যক এ্যাজেন্ট তাদের মোবাইল ক্যাশের মাধ্যমে সুবিধাভোগী শিক্ষার্থীদের হাতে ক্যাশ করে দিচ্ছেন। এরকম একজন এ্যাজেন্ট সফিকুল ইসলাম। তিনি পাটগ্রাম পৌরসভার মধ্য চৌরঙ্গি দিগন্ত ট্যালিকমে ব্যালান্স ট্রান্সফারসহ বিভিন্নভাবে টাকা লেনদেন করে থাকেন।সফিকুল ইসলাম শিক্ষার্থীদের পাওনা টাকা থেকে ২০টাকা করে কেটে নিলে জনৈক অবিভাবক উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর অভিযোগ করলে নির্বাহী অফিসার ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন। এতে অভিযোগের সত্যতা প্রমাণিত হলে সফিকুল ইসলামকে ৭ দিনের কারাদণ্ড প্রদান করা হয়।

পাটগ্রাম উপজেলা নির্বাহী অফিসার নুর কুতুবুল আলম সফিকুল ইসলামের কারাদণ্ডের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।