ঢাকাঃ ৩০ আগষ্ট ২০১৭ বুধবারঃ

ঈদযাত্রায় ফিটনেসবিহীন বাস ও লঞ্চ বন্ধের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতি। আজ ৩০ আগষ্ট বুধবার বিকালে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এ দাবি জানায় সংগঠনটি।

বিবৃতিতে বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতির মহাসচিব মো. মোজাম্মেল হক চৌধুরী বলেন, প্রতিবছর ঈদে গণপরিবহণ সংকটকে পুঁজি করে ফিটনেসহীন বাস, ট্রাক, লেগুনা, টেম্পু, মাইক্রোবাস, কার, নছিমন-করিমন, সিটিসার্ভিসের বাস দূরপাল্লায় যাত্রী পরিবহণে নেমে পড়ে। এসব যানবাহণ রাস্তায় নষ্ট হয়ে যানজট ও ভোগান্তি সৃষ্টির পাশাপাশি দূর্ঘটনা ঝুঁকিও বেড়ে যায়। আমরা সরকারকে ধন্যবাদ জানাই বিগত বেশ কয়েক বছর যাবৎ আমাদের এ দাবির প্রেক্ষিতে এবার বিআরটিএর পক্ষ থেকে এসব যানবাহন বন্ধের জন্য পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে। আমরা বলতে চাই শুধু বিজ্ঞপ্তি দিয়ে দায়িত্ব শেষ করা যাবে না। এসব যানবাহন বন্ধে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।

 

তিনি আরো বলেন, এবারের ঈদে নৌ-পথে ভয়াবহ দুর্যোগপূর্ণ মৌসুম চলছে। কিন্তু প্রতিবছর ঈদে লঞ্চগুলো ধারণ ক্ষমতার ৫-৬ গুণ বেশি যাত্রী নিয়ে যাতায়াত করে। ইতিমধ্যে নৌ-পরিবহন মন্ত্রনালয়ের পক্ষ থেকে লঞ্চে অতিরিক্ত যাত্রী বোঝাই নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে। আমরা এ ঘোষণা বাস্তবায়ন দেখতে চাই, এছাড়া নৌ-পথে অতিরিক্ত পানির কারণে বয়া, বাতি সিগন্যাল মুছে যাওয়ায় অনেক নৌ-পথ ঝুকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে। এসব নৌ-পথে ফিটনেসবিহিন, ঝুকিপূর্ণ লঞ্চ চলাচল কঠোরভাবে নিষিদ্ধ করার দাবি জানান তিনি।