ক্রীড়াবান্ধব প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন গ্রুপ দেশের প্রায় সব ধরনের খেলাধুলায়ই পৃষ্ঠপোষকতা করছে। দেশের প্রায় সবগুলো ফেডারেশনের সঙ্গেই কাজ করছে। বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সঙ্গে ওয়ালটন গ্রুপের সম্পর্ক বেশ নিবিড়। ফুটবল ফেডারেশন কর্তৃক আয়োজিত সব ধরণের টুর্নামেন্টের সঙ্গেই কোনো না কোনোভাবে ওয়ালটন গ্রুপ সম্পৃক্ত হওয়ার চেষ্টা করে। বিশেষ করে মেয়েদের ফুটবলে পৃষ্ঠপোষকতা করার ক্ষেত্রে ওয়ালটন সব সময়ই গুরুত্ব দিয়ে থাকে। তারই ধারাবাহিকতায় ‘জেএফএ অনূর্ধ্ব-১৪ মহিলা জাতীয় ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ-২০১৭’ এর সঙ্গেও যুক্ত হয়েছে ওয়ালটন গ্রুপ। এ নিয়ে তৃতীয়বারের মতো এই টুর্নামেন্টের সঙ্গে সম্পৃক্ত হল ওয়ালটন।

 

২০ আগস্ট থেকে দেশের ছয়টি ভেন্যুতে শুরু হবে জেএফএ কাপের এবারের আসর। তিনদিন ব্যাপী ছয়টি ভেন্যুতে টুর্নামেন্টের বাছাইপর্ব হওয়ার পর মূলপর্ব হবে ঢাকায়। ছয়টি ভেন্যুতে মোট ৩৬টি দল অংশ নিবে এবারের এই টুর্নামেন্ট।

 

এ বিষয়ে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সদস্য ও মহিলা ফুটবল কমিটির চেয়ারম্যান (ফিফা ও এএফসির নির্বাহী কমিটির সদস্য) মিস মাহফুজা আক্তার কিরণ বলেন, ‘২০ আগস্ট থেকে ছয়টি ভেন্যুতে শুরু হবে জেএফএ কাপের এবারের আসর। যেখানে ৩৬টি দল অংশ নিবে। ভেন্যুগুলোর মধ্যে রয়েছে রাজশাহী, গাইবান্ধা, যশোর, রাজবাী, শেরপুর ও লক্ষ্মীপুর। তিনদিন আঞ্চলিক পর্বের খেলার পর মূলপর্ব হবে ঢাকায়। এবারও এই টুর্নামেন্টের পাওয়ার স্পন্সর হিসেবে আছে ওয়ালটন গ্রুপ। তারা সব সময়ই আমাদের পাশে আছে। সে জন্য তাদের ধন্যবাদ জানাই।’

 

এ বিষয়ে ওয়ালটন গ্রুপের অপারেটিভ ডিরেক্টর (হেড অব স্পোর্টস এন্ড ওয়েলফেয়ার) এফএম ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন) বলেন, ‘আমরা বরাবরই মহিলা ফুটবলের সঙ্গে কাজ করছি। অনূর্ধ্ব-১৬, অনূর্ধ্ব-১৪ এর বাইরেও আরো বেশ কয়েকটি টুর্নামেন্টে আমরা পৃষ্ঠপোষকতা করেছি। আমরা জেএফএ কাপের গেল দুই আসরেও ছিলাম। এবারও এর সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়েছি। বাংলাদেশের মহিলা ফুটবলকে আমরা শক্তিশালী করতে চাই। আমরা বিশ্বাস করি এই টুর্নামেন্টের মাধ্যমে ভালো কিছু খেলোয়াড় উঠে আসবে এবং তারা আমাদের অনূর্ধ্ব-১৬ দলকে সমৃদ্ধ করবে। এক সময় তারা জাতীয় দলকেও সমৃদ্ধ করবে।’