বিশেষ প্রতিনিধি:-

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ এইচ. বি. এম. ইকবাল মুক্তিযুদ্ধের ডাক আসার সাথে সাথে সরাসরি যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন। ভারতের দেরাদূনে বাংলাদেশ লিবারেশন ফোর্স (বিএলএফ) এর গেরিলা ট্রেনিং শেষে যোগ দেন মুজিব বাহিনীতে। ডাঃ ইকবাল সম্মুখ সমরে অংশ নেয়া একজন সাহসী যোদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা।
প্রিয় মাতৃভূমিকে স্বাধীন করার পর দেশকে অর্থনৈতিকভাবে এগিয়ে নিতে কাজ শুরু করেন ডাঃ এইচ. বি. এম. ইকবাল। এরই ধারাবাহিকতায় অসংখ্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ব্যাংক, বীমা, লিজিং, ম্যানুফ্যাকচারিং, সিমেন্ট, পেট্রোলিয়াম, ট্রেইনিং, বিপণন, ট্রাভেল অ্যান্ড ট্যুরিজম, এভিয়েশন, মেডিকেল সেন্টার, সুপার মার্কেট, হোটেল এবং রেস্টুরেন্ট সহ নানাবিধ ব্যবসায় নিজেকে সম্পৃক্ত করেন। তাঁর সততা, নিষ্ঠা ও ব্যবসায়িক জ্ঞানকে কাজে লাগিয়ে প্রতিটি ক্ষেত্রেই সফল হয়েছেন ডাঃ এইচ. বি. এম. ইকবাল।

শুধুমাত্র ব্যবসায়ী হিসেবেই নয়, তিনি রাজনীতির সাথেও সরাসরি সম্পৃক্ত। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ থেকে ঢাকার তেজগাঁও-রমনা আসনে নির্বাচিত সংসদ সদস্য এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যানও ছিলেন। তিনি দেশের শিক্ষাখাতে ও গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে চলেছেন। ডাঃ ইকবাল ইতিমধ্যে শিক্ষা নগরীর আওতায় স্কুল, কলেজ এবং প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেছেন এবং নার্সিং ইনিস্টিটিউট, মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল, ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে একটি শিক্ষিত এবং স্বাবলম্বী জাতি গঠনে নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। ব্যবসায়িক ও সামাজিক খাতে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের জন্য প্রতিবছর অসংখ্য দেশীয় ও আন্তর্জাতিক এওয়ার্ড অর্জন করেছেন। এছাড়াও তিনি লন্ডন গ্র্যাজুয়েট স্কুল হতে কর্পোরেট সোশ্যাল রেস্পনসিবিলিটিতে মাস্টার ক্লাস সার্টিফিকেট এবং লন্ডনের কমনওয়েল্থ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সম্মানসুচক ডক্টরেট ডিগ্রী কৃতিত্বের সাথে অর্জন করেন।
দৃঢ় প্রত্যয়ী ও আত্মবিশ্বাসী এবং একজন সফল ব্যক্তিত্ব ডাঃ এইচ. বি. এম. ইকবাল বিগত ২০০৯ সালে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী শেখ হাসিনার কাছে ডিজিটাল ঢাকার মাস্টার প্ল্যানের প্রস্তাবনা উত্থাপন করেন। ”নিউ ডিজিটাল ঢাকা” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে নগরীর যোগাযোগ ব্যবস্থার পুনর্গঠন, ঢাকার চারপাশে স্যাটলাইট টাউনশিপ গড়ে তোলা, পানি ও পয়নিস্কাশন ব্যবস্থার আধুনিকায়ন, সন্ত্রাস ও দুর্নীতি দূরীকরণ এবং প্রয়োজনীয় জ্বালানি সরবরাহ নিশ্চিতকরণে বিভিন্ন পরিকল্পনা রয়েছে ডাঃ ইকবালের।