মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে চলমান জাতিগত নিধনযজ্ঞে অগ্রহণযোগ্য ভূমিকার জন্য এবার অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্ট হিউজ কলেজের কমনরুম থেকে মুছে দেয়া হলো অং সান সু চি’র নাম। অক্সফোর্ড কলেজের শিক্ষার্থীরা বৃহস্পতিবার জুনিয়র কমন রুম থেকে সু চি’র নাম সরিয়ে ফেলার পক্ষে ভোট দেয়।
বিবিসি’র এক খবরে বলা হয়েছে, সেইন্ট হিউজ কলেজের শিক্ষার্থীদের প্রস্তাবে বলা হয়, সু চি মিয়ানমারে রাখাইন রাজ্যে চলমান গণহত্যা, ধর্ষণ ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের নিন্দা করতে ব্যর্থ হয়েছেন যা অগ্রহণযোগ্য ও ক্ষমার অযোগ্য। এক সময় তিনি যে আদর্শকে গুরুত্ব দিয়েছিলেন আজ তিনি সেই আদর্শের বিরুদ্ধেই অবস্থান নিয়েছেন।
এর আগে এই কলেজ নোবেল পুরস্কার জয়ী সু চি’র একটি প্রতিকৃতি অপসারণ করেছিল। অক্সফোর্ড কাউন্সিল এবং লন্ডন সু চি’কে দেওয়া ‘অনারারি ফ্রিডম’ বাতিলের বিষয়ে চিন্তা-ভাবনা করছে। সু চি সেইন্ট হিউজ কলেজ থেকে ১৯৬৭ সালে স্নাতক ডিগ্রি লাভ করে অং সান সু চি এবং ২০১২ সালে তাকে সম্মানজনক ডক্টরেট ডিগ্রি দেয় অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়।
প্রসঙ্গত, গত ২৫ আগস্ট থেকে রাখাইনে মিয়ানমার সেনাবাহিনী জাতিগত নিধন অভিযান শুরুর পর কয়েক হাজার রোহিঙ্গা নিহত হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। একইসঙ্গে প্রায় সাড়ে ৫ লাখ রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। কিন্তু এক্ষেত্রে সু চি’র ভূমিকা বিশ্ববাসীকে অনেকটাই হতবাক করেছে।